Loading...
You are here:  Home  >  এক্সক্লুসিভ  >  Current Article

সৌদী আরবে ৩৫ লাখ শিশু স্থূলতায় ভুগছে

সময়২৪: বিদ্যমান খাওয়া দাওয়ার অভ্যাস ও শারীরিক অনুশীলন অর্থাৎ ব্যায়াম না করায় সৌদী আরবের ছেলেমেয়েরা ক্রমশ: মুটিয়ে যাচ্ছে। এক পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, সৌদী আরবে বর্তমানে ৩৫ লাখ ছেলেমেয়ে স্থূল বা অত্যধিক ওজনের অধিকারী। এ ধরনের স্থূলতা হৃদরোগ, ডায়াবেটিস এবং উচ্চ রক্তচাপের মারাত্মক রোগ সৃষ্টি করছে ছেলেমেয়েদের দেহে।
২০১৩ সালে এ পর্যন্ত প্রায় ২০ হাজার সৌদী নাগরিক স্থূলতাজনিত নানা ব্যাধিতে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু বরণ করেছে। সরকারী পরিসংখ্যানে রিপোর্টে বলা হয়, ২ কোটি ৯০ লাখ সৌদী জনসংখ্যার প্রায় ৩৯ শতাংশ স্থূলতাজনিত নানা সমস্যায় ভুগছে। কিন্তু এর প্রকৃত সংখ্যা ৭০ শতাংশ হতে পারে। একটি স্থানীয় হেলথ্ ফিটনেস জিম-এর মালিক মোহাম্মদ ফাহাদ বলেন, আত্মনিয়ন্ত্রণ আমাদের জীবনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অংশ। এটা জনগণকে সুস্থতার ও সফল করে। আমাদের উচিত আমাদের বাজে অভ্যাসগুলো নিয়ন্ত্রণ এবং দৈনন্দিন রুটিনে কিছু শারীরিক অনুশীলন সংযোজন করা।
কিং আবদুল আজিজ মেডিকেল সিটি পরিচালিত সাম্প্রতিক এক সমীক্ষায় দেখা গেছে, সৌদী আরবের ২৩ দশমিক ১ শতাংশ শিশু স্থূল। জেনারেল ফিজিশিয়ান ডা: শুমাইলা তারিক বলেন, অধিকাংশ সৌদী শিশু প্রক্রিয়াকৃত খাদ্য  এবং ফাস্ট ফুড গ্রহণ করে যা ঘরে তৈরী খাবারের চেয়ে স্বাস্থ্যকর নয়। এসব চর্বিযুক্ত খাবার দুর্বল মস্তিষ্ক ক্রিয়া, অপর্যাপ্ত ঘুম এবং অস্বাস্থ্যকর জীবন যাপনের জন্য দায়ী।
সৌদী শিশু বিশেষজ্ঞ আহসান উল্লাহ বলেন, স্থূলকায় অনেক লোকই জানতে চায়, তাদের কী খাওয়া ও কীভাবে ব্যায়াম করা উচিত। লোকজনের উচিত নিজেদের অনুপ্রাণিত করা, শারীরিক অনুশীলনে কিছু সময় ব্যয় এবং স্বাস্থ্যকর খাবার গ্রহণ করা।
লক্ষণীয় যে, ২১ শতকে বিশ্বে স্থূলতা ও অত্যধিক ওজন  মৃত্যুর পঞ্চম প্রধান ঝুঁকি বা কারণ। প্রতি বছর কমপক্ষে ২৮ লাখ বয়স্ক লোক স্থূলতা ও অত্যধিক ওজনের কারণে সৃষ্ট জটিলতা অর্থাৎ রোগে মারা যায়।

    Print       Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>

You might also like...

HRW

শ্রমিক নেতা আমিনুল হত্যাকারীদের খুঁজে বের করার আহ্বান

Read More →