Loading...
You are here:  Home  >  দেশ জুড়ে  >  Current Article

চেয়ারম্যান পদে আ.লীগ ৫৩, বিএনপি ১৪, জামায়াত ৩

সামছুল আরেফীন, মিয়া হোসেন: পঞ্চম দফায় উপজেলা নির্বাচনে গতকাল সোমবার ৩৭ জেলার ৭৩ উপজেলায় ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বেসরকারি ফলাফলে ৫৩টি উপজেলায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত, ১৪টিতে বিএনপি সমর্থিত, ৩টিতে জামায়াতে ইসলামী সমর্থিত এবং অন্যান্য প্রার্থী ৩টি উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন। গতকালের নির্বাচনে ভোটচলাকালীন সময়ে সরকার সমর্থিত প্রার্থীদের বিজয়ী করতে ব্যাপক ভোট ডাকাতি হয়েছে। আর ফলাফল ঘোষণার সময়ও কয়েকটি স্থানে নানা কৌশলে ফলাফল পাল্টে দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। সিলেটের বিয়ানী বাজারে রাতে বিদ্যুৎ বিভ্রাট ঘটিয়ে ফলাফল পাল্টে দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। সিরাজগঞ্জের উপজেলাগুলোতেও ফলাফল প্রকাশে বিলম্ব করা হয়েছে। অবশেষে অল্প ভোটের ব্যবধানে ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীকে বিজয়ী ঘোষণা করতে দেখা গেছে।
মোট ৪৮৭টি উপজেলার মধ্যে ৫ দফায় সর্বমোট ৪৫৯টি উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। তার মধ্যে ৪৫৫টির ফলাফল ঘোষিত হয়েছে। এ ফলাফলে দেখা গেছে, আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী ২৫৫টিতে, বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী ১৬০টিতে, জামায়াতে ইসলামী সমর্থিত ৩৬টিতে, জাতীয় পার্টি সমর্থিত প্রার্থী ৩টিতে চেয়ারম্যান পদে বিজয়ী হয়েছে। এছাড়াও ৩১টি উপজেলায় অন্যান্য দল ও স্বতন্ত্র প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছে।
পঞ্চম দফায় ৭৩ উপজেলার বেসরকারি ফলাফল হলো: আওয়ামী লীগ: গাইবান্দার ফুলছড়িতে হাবিবুর রহমান প্রাপ্ত ভোট ১৮ হাজার ২৪৪, সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে মোহাম্মদ আলী আকন্দ ৪১ হাজার ৩৮৭, পাবনার বেড়ায় আব্দুল কাদের ৬৮ হাজার ৮৪১, চুয়াডাঙ্গা সদরে আসাদুল হক ১ লাখ ৪০ হাজার ৫৩০, আলমডাঙ্গায় হেলাল উদ্দিন ১ লাখ ৪২ হাজার ৫১, সাতক্ষীরার দেবহাটায় আব্দুল গানি ৫৩ হাজার ১৭২, বরগুনার সদরে আব্বাস উদ্দিন মন্টু ৩৮ হাজার, আমতলীতে জিএম দেলোয়ার ৪০ হাজার, বামনায় সাইফুল ইসলাম ৩১ হাজার ৩৩, পটুয়াখালীর দশমিনায় সাখাওয়াত হোসেন ১৫ হাজার ১৯৭, টাঙ্গাইল সদরে এডভোকেট খোরশেদ আলম ৬৬ হাজার ৪৭, ঘাটাইলে নজরুল ইসলাম খান ৯৮ হাজার ৯৫৭, মির্জাপুরে মীর এনায়েত হোসেন মন্টু ৭৮ হাজার ২৭১, গোপালপুরে ইউনুস ইসলাম তালুকদার ৮৮ হাজার ১৮৭, জামালপুরের মাদারগঞ্জে ওবায়দুর রহমান ১ লাখ ৩২ হাজার ২৩০, কিশোরগঞ্জের অস্টগ্রামে অধ্যাপক শহিদুল ইসলাম ৩১ হাজার ৩০৫, পাকুন্দিয়ায় রফিকুল ইসলাম রেনু ৪৬ হাজার ৯৪৫, মুন্সীগঞ্জের টঙ্গীবাড়ীতে ইঞ্জিনিয়ার কাজী ওয়াহিদ ৬১ হাজার ৫৬০, সিরাজদীখান মহিউদ্দিন আহমদ ৬৮ হাজার ১৩৫, লৌহজংএ ওসমানগনী তালুকদার ৮২ হাজার ৩২২, রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ এবিএম নুরুল ইসলাম ২১ হাজার ৩০৫, সিলেটের বিয়ানীবাজারে আতাউর রহমান খান ২০ হাজার ৬৪৭, মৌলভী বাজারের রাজনগরে আসগর খান ২৬ হাজার ১৩৯, কুমিল্লার চান্দিনায় তপন বকসী ১ লাখ ৩১ হাজার ৬৯, ফেনীর ছাগলনাইয়ায় মেজবাউল হায়দার সোয়েল ৬৯ হাজার ৫৭৭, নোয়াখালীর সুবর্ণচরে খায়রুল আলম ৮১ হাজার ৩৮১, কক্সবাজারের টেকনাফে জাফর আহমেদ ৩১ হাজার ৬০৮, রাঙ্গামাটির রাজসলীতে উথীন শীল মারমা ৪ হাজার ১৫৩ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়াও নরসিংদীর রায়পুরে মিজানুর রহমান চৌধুরী , নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে শাহজাহান ভুইয়া, পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় আবদুল মোতালেব, সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে আজাদ রহমান শাহজাহান, নীলফামারীর ডোমারে আবদুর রাজ্জাক বসুনিয়া, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদরে জাহাঙ্গীর আলম, কুমিল্লার মুরাদনগর সৈয়দ আবদুল কাইয়ুম, ময়মনসিংহের নান্দাইলে আবদুল মালেক চৌধুরী, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় আনিসুল হক, লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে আ ক ম রুহুল হক, লক্ষ্মীপুরের রামগতিতে আবদুল ওয়াহেদ,  গাজীপুরের কালীগঞ্জে মোয়েজ্জম হোসেন, নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারের শাহজালাল মিয়া, লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে আলতাফ হোসেন মাস্টার, লক্মীপুর সদরে একেএম সালাহউদ্দিন টিপু, সাতক্ষীরা সদরে আসাদুজ্জামান বাবু, সাতক্ষীরার তালা ঘোষ সনাৎ কুমার, নরসিংদীর মনোহরদীর সাইফুল ইসলাম, চট্টগ্রামের সন্দ্বীপে মো. শাহজাহান , লালমনিরহাটের কালিগঞ্জে মাহবুবুজ্জামান, বরগুনার পাথরঘাটায় রফিকুল ইসলাম, পাবনা সদরের মোশাররফ  হোসেন, মৌলভীবাজারের জুড়ি এমএ মুহিত,নোয়াখালীর হাতিয়া মাহবুব মোরশেদ, ময়মনসিংহের গফরগাঁওে আশরাফউদ্দিন বাদল।
বিএনপি: দিনাজপুরের বিরলে বজলুর রশিদ কালু প্রাপ্ত ভোট ৪৮ হাজার ৭৩৬, পাবর্তীপুরে আমিনুল ইসলাম ৬৭ হাজার ২২৭, হাকিমপুরে আকরাম হোসেন মন্ডল ২০ হাজার ৪০, বগুড়া সদরে আলী আসগর তালুকদার হেনা ১ লাখ ৫৪ হাজার ৮০৮, সুনামগঞ্জের বিশ্বম্ভপুরের হারুনুর রশিদ ২৪ হাজার ৭১০, তাহিরপুরে কামরুজ্জামান কামরুল ৩৩ হাজার, কক্সবাজারের উখিয়ায় সারোয়ার জাহান চৌধুরী ৪১ হাজার ৯৭৮ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়াও গাজীপুরের শ্রীপুরে আবদুল মোতালেব, নারায়নগঞ্জের সোনারগাঁও এ আজাহারুল ইসলাম, নরসিংদী সদরে মঞ্জুর এলাহী, হবিগঞ্জের বানিয়াচং এ শেখ বশির আহমেদ, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে আবু আসিফ আহমেদ ,রাঙামাটির লংগদুতে তোফাজ্জল হোসেন, ময়মনসিংহের ত্রিশালে জয়নাল আবেদীন।
জামায়াত: গাইবান্দার সুন্দরগঞ্জে অধ্যাপক মাজিদুর রহমান ৬২ হাজার ৭৭৯, রাজশাহীর পবায় মকবুল হোসেন ৬৬ হাজার ৭৫৭, কক্সবাজার সদরে রহিম উল্লাহ ৪৩ হাজার ২৩ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।
অন্যান্য: খাগড়াছড়ির দিঘিনালায় ইউপিডিএফ সমর্থিত নবকোমল চাকমা ১২ হাজার ৮১০ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। এ ছাড়াও রাঙামাটির বিলাইছড়িতে জেএসএস-এর শুভ মঙ্গল চাকমা রাঙামাটি সদরে জেএসএস-এর করুণকান্তি চাকমা।

    Print       Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>

You might also like...

Dankan

‘নির্বাচন ও বিরোধী দল অস্বাভাবিক’

Read More →